আজ ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

রায়গঞ্জে শিক্ষকের ছেলে মাদক ব্যবসায় জরিয়ে গড়ে তুলেছে অবৈধ সম্পদ ও অর্ধ শত কোটি টাকার পাহাড়!

প্রবীর সাহা’র অবৈধ টাকার উৎস কোথায় -১

বিশেষ প্রতিবেদকঃ

শিক্ষা জাতির মেরুদন্ড আর এই মেরুদন্ড তৈরির কারিগড় হলেন শিক্ষক। কিন্তু একজন শিক্ষক সমাজ ও দেশে শিক্ষিত জাতি তৈরিতে শিক্ষা প্রদান করলেও নিজের সন্তানকে সঠিক শিক্ষায় শিক্ষিত করতে ব্যর্থ হয়েছেন। রায়গঞ্জ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক প্রদীপ সাহার ছেলে প্রবীর সাহা দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত লেখা পড়া করে বাবার টিনের ব্যবসায় মনযোগ দেয়। কিছুদিন পড় প্রবীরের উচ্চকাংখা থেকে তার তিন ভাইকে সাথে নিয়ে অবৈধ বিভিন্ন ব্যবসার মাধ্যমে টাকা উপার্জন করতে শুরু করে। প্রথমে মাদক দিয়ে ব্যবসা শুরু করায় তাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয় নাই। এরপর তেলের পাম্প মাষ্টার এন্ড ফিলিং স্টেশন, পিংকি ইট ভাটা,পিংকি গাড়ি, বিলাসবহুল বহুতল বাড়ি, মাদক ব্যবসার পাশাপাশি নিকটতম আত্মীয়’র জমি ফাঁকি দিয়ে জোর পূর্বক দখল করে শতশত কোটি টাকা উপর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। মাননীয় প্রধান মন্ত্রী দেশ রতœ শেখ হাসিনা যখন বাংলাদেশকে মাদক মুক্ত ও যুব সমাজের মেধাকে দক্ষতায় রূপান্তর করে উদ্যেক্তা সৃষ্টির মাধ্যমে সোনার বাংলাকে উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তোলার সর্বোচ্চ চেষ্টা করছেন ঠিক সে সময় প্রবীরের মত কিছু অসাধু ছদ্মবেশি ব্যবসায়ি বিভিন্ন কৌশলে মাদক কারবার ও পাড়াপাড়ে ব্যস্ত সময় পাড় করছে। সরেজমিনে তথ্য অনুসন্ধ্যানে জানা যায়, বর্তমানে প্রবীরের পিংকি নামে প্রায় ৩৬ টি বাস রয়েছে যা ঢাকা থেকে উত্তর বঙ্গের বিভিন্ন (ভারত বাংলাদেশ) সীমান্ত অঞ্চলে নিয়মিত চলাচল করছে। ২ টি তেল বাহী লড়ী, ৪টি ড্রাম ট্রাক, ও একটি বেকু রয়েছে। ভারতে কিছু বাস ও বিভিন্ন ব্যবসাও রয়েছে। অতীত থেকে মাদক ব্যবসা করে আসা প্রবীর ভারত বাংলাদেশ সীমান্তে গাড়ি চলাচলের ব্যবসা কাজে লাগিয়ে ভারত থেকে আসা বিভিন্ন মাদক দ্রব্য সরবরাহ করে বিভিন্ন ভেন্ডারের মাধ্যমে সমাজের বিভিন্ন স্তরে ছড়িয়ে যুব সমাজ ধ্বংসে মেতে ওঠেছে। কয়কে বছর আগে প্রবীরের একটি ট্রাকে বিশেষ কৌশলে লুকিয়ে রাখা কয়েক হাজার বোতল ফেন্সিডিল সহ বিভিন্ন মাদক দ্রব্য বহন করার সময় সলঙ্গা থানা পুলিশ হাটিকুমরুল এলাকা থেকে ট্রাক আটক করে। ভূইয়াগাতী এলাকার স্থানীয় কাসেম দৈনিক আজকের সিরাজগঞ্জ প্রতিবেদককে জানান, প্রবীর খুব চালাক প্রকৃতির মানুষ সে সবসময় মানুষে দারিদ্রতার সুযোগ নিয়ে অবৈধ কাজ ও ব্যক্তিগত বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করে থাকেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুুক প্রবীরের গ্রামের প্রতিবেশিদের তথ্যে জানা যায়, প্রবীরের টিনের ব্যবসা ছিলো, সংসারে খুব বেশি সচ্ছলতা ছিলো না। মাত্র ৬ বিঘা জমির মালিক হঠাৎ করে কিভাবে এত অল্প সময়ে শতশত কোটি টাকার সম্পদের মালিক হলো তা কল্পানায় আসে না। তাই দুদকের কাছে আবেদন প্রবীরের এত টাকা উৎস কোথায় তা খতিয়ে দেখবে বলে আশা করেন এলাকাবাসী।

এবিষয়ে প্রবীরের সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করলে প্রবীর জানান, আমি বৈধ পথে টাকা উপার্জন করেছি। আমার নামে যে অভিযোগ এসেছে তা মিথ্যা।

0Shares

One response to “রায়গঞ্জে শিক্ষকের ছেলে মাদক ব্যবসায় জরিয়ে গড়ে তুলেছে অবৈধ সম্পদ ও অর্ধ শত কোটি টাকার পাহাড়!”

  1. MD ALHAJJ HOSSAIN says:

    সঠিক সংবাদ পাওয়ার আশা করছি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তী

error: Content is protected !!